JU IBA Admission Test (G-Unit)

0 student

টার্গেট যাদের IBA এবং BBA তাদের জন্যই এই পোস্ট :

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের E ইউনিট ( BBA ) এবং G ইউনিট ( IBA ) এর বিস্তারিত তথ্য , প্রস্তুতির দিকনির্দেশনা / চান্স পেতে চাইলে যেভাবে প্রিপারেশান নিতে হবে :

প্রথমেই দেখে নেও মানবন্টন :

E Unit ( বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ) :

বাংলা – ১৫ , ইংরেজি – ৩০ , গণিত – ১৫, হিসাব বিজ্ঞান এবং ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা – ২০

G Unit ( ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ( IBA – JU ) :

বাংলা – ৫, ইংরেজি – ৩০ , Mathematical Aptitude & IQ – ৩০ , সাম্প্রতিক ও বিশ্লেষণমূলক বিষয় – ১০ এবং ভাইভা – ৫

G ইউনিটে বাংলা ব্যতিত সকল প্রশ্ন ইংলিশ ভার্সনে হবে ।

আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা :

E ইউনিট ( বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ) :
* মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় পৃথকভাবে সর্বনিম্ন জিপিএ ৩.৫০ পেতে হবে।
* উচ্চমাধ্যমিক ব্যবসায় শিক্ষা/ মানবিক ও অন্যান্য শাখাঃ মোট জিপিএ ৭.০০।
* উচ্চমাধ্যমিক বিজ্ঞান শাখাঃ মোট জিপিএ ৭.৫০
* উচ্চমাধ্যমিকে ইংরেজি এবং গণিত/অর্থনীতি/ হিসাববিজ্ঞান/ ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগে বি গ্রেড।

G ইউনিট ( ইনস্টিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ( IBA – JU ) :
মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় পৃথকভাবে সর্বনিম্ন জিপিএ ৪.০০ পেতে হবে।
* উচ্চমাধ্যমিক বিজ্ঞান শাখাঃ মোট জিপিএ ৮.৫০।
* উচ্চমাধ্যমিকে গণিত এবং ইংরেজিতে এ- (মাইনাস) গ্রেড।

* উচ্চমাধ্যমিক মানবিক/ ব্যবসায় শিক্ষা/ অন্যান্য শাখাঃ মোট জিপিএ ৮.০০
* উচ্চমাধ্যমিকে ইংরেজিতে এবং হিসাববিজ্ঞান/অর্থনীতি/ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগে এ- (মাইনাস) গ্রেড।.

প্রস্তুতির দিকনির্দেশনা / চান্স পেতে চাইলে যেভাবে প্রিপারেশান নিতে হবে :

জাবির প্রশ্নপদ্ধতি সকল ভার্সিটি থেকে আলাদা তাই জাবির প্রশ্নপদ্ধতি বুঝতে ও ভালোভাবে প্রিপারেশান নিতে চাইলে প্রথমেই প্রশ্নব্যাংক সলভ করতে হবে । জাবির জন্য ” Climax ” প্রশ্নব্যাংক বেস্ট । Climax এর E ও G ইউনিটের প্রশ্নব্যাংক ফলো করো ।

G ইউনিটের সাম্প্রতিক ও বিশ্লেষণমূলক বিষয় এর জন্য ফলো করতে হবে ” English GK Summit ” এবং ” সাম্প্রতিক ক্যাপ্টেন “।

বাংলার জন্য ফলো করতে হবে ” বাংলা প্রান্তর ” ও ইংরেজির জন্য ফলো করতে হবে ” ছায়ামঞ্চ Competitive English ”

Math এর জন্য ফলো করতে হবে ” MATH SUMMIT ”

G ইউনিটে যে IQ থেকে থেকে প্রশ্ন করা হয় সেটা সার্কুলারেই বলা আছে কিন্তু E ইউনিটে ও ৫/৬ টা প্রশ্ন থাকে IQ থেকে যেটা সার্কুলারে বলা নেই। Math এর জন্য বরাদ্ধকৃত ৩০ নাম্বারের মধ্যে ২৪/২৫ নাম্বার থাকে Math আর ৫/৬ নাম্বার থাকে IQ. …. IQ এর জন্য ফলো করতে হবে ” ছায়ামঞ্চ IQ SUMMIT “। এটিই বাংলাদেশের Best IQ বই।

হিসাব বিজ্ঞান এবং ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা এর জন্য ফলো করবা ” ছায়ামঞ্চ Business Studies ”

E ও G ইউনিটের বই সাজেশনঃ
বাংলা প্রান্তর, ছায়ামঞ্চ Competitive English , ছায়ামঞ্চ IQ SUMMIT , সাম্প্রতিক ক্যাপটেন, Climax এর E ও G ইউনিটের সাপ্লিমেন্ট , ছায়ামঞ্চ Business Studies, MATH SUMMIT , English GK Summit .

তোমরা অনেকেই জানতে চেয়েছো ভর্তি পরীক্ষায় কতো নাম্বার পেলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাব ?
এই প্রশ্নের উত্তর দেয়া আসলেই কঠিন । কারন , এটা নির্ভর করে প্রশ্নের উপর । প্রশ্ন কঠিন হলে কম নাম্বার পেয়েও চান্স পেয়ে যেতে পারো । আর প্রশ্ন সহজ হলে বেশি নাম্বার পেতে হবে । তবে সর্বনিন্ম কতো পেয়ে চান্স পেয়েছে এবং সর্বোচ্চ নাম্বার কত ছিল তা নিচে লিখে দিলাম . এটা দেখে ধারনা করে নাও কত পেলে চান্স পেতে পারো .

E Unit ( বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ) :

Male : সর্বোচ্চ : ৭৪ , সর্বনিন্ম : ৬১
Female : সর্বোচ্চ : ৭১ , সর্বনিন্ম : ৫৬

[ Out of 100 অর্থাৎ জিপিএ স্কোর সহ ]

G ইউনিটে চান্স পেতে চাইলে সাধারণত ৭০% নাম্বার পেতে হয় ।

E ইউনিটে মোট ৮০ নাম্বারের MCQ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে । G ইউনিটে মোট ৭৫ নাম্বারের MCQ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে । ৫ নাম্বার ভাইভা পরবর্তীতে অনুষ্ঠিত হবে । উভয় ইউনিটেই ভর্তি পরীক্ষার সময় ৫৫ মিনিট । অবশ্য OMR শিট পূরণের জন্য আলাদাভাবে ৫ মিনিট সময় দেয়া হবে ।

এসএসসি ও এইচএসসি রেজাল্টের উপর থাকবে ২০ নাম্বার । ৪র্থ বিষয় সহ জিপিএ হিসাব করা হবে । এসএসসি রেজাল্টকে ১.৫ দ্বারা ও এইচএসসি রেজাল্টকে ২.৫ দ্বারা গুন করা হবে ।

এই মোট ১০০ নাম্বারের উপর রেজাল্ট পাবলিশ করা হবে ।

প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২০ নাম্বার কাটা যাবে ।

ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা যাবেনা । তবে প্রশ্নে রাফ করা যাবে.

টার্গেট সেট করে পড়ো । আজকে কতটুকু পড়বা সেটা দিনের শুরুতেই ঠিক করে ফেলো । সেটা খাতায় লিখো । সে অনুসারে পড়ার চেষ্টা কর । কতটুকু পড়লা দিনশেষে তা লিখে রাখতে পারো ।

নিয়মিত নামাজ আদায় করো , দৈনিক কুর্‌আন তেলাওয়াত করো ( অল্প করেই করো.. অন্তত ১ পৃষ্ঠা ) । ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে মন ও ফ্রেশ থাকে । বাজে চিন্তা মাথায় কম ঢুকে । পড়ায় মন বসে । কোনভাবেই হতাশ হওয়া যাবেনা । নিজের উপর , সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাস রেখে সর্বোচ্চ পরিশ্রম করে যাও। একটা কথা মনে প্রাণেই বিশ্বাস করো ” ইনশাআল্লাহ আমি চান্স পাবই ” । আর চেষ্টা করে যাও সেভাবেই । ইনশাআল্লাহ চান্স পাবা শুভকামনা রইলো।

Instructor

User Avatar admin

0.00 average based on 0 ratings

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%
৳100.00